ডেঙ্গু আতঙ্কে জয়





বিজেপির ডেঙ্গি সচেতনতা পরামর্শে কান দেয়নি তৃণমূল সরকার, ডেঙ্গির কবলে স্বাস্থ্য ভবন। বিজেপির প্রশ্ন ডেঙ্গি কি এবার রাজ্যে ডেঙ্গি  মহামারির পরিবেশ তৈরি হচ্ছে।বিজেপি নেতা জয় বন্দোপাধ্যায় বলেন, গত বছর বিজেপির স্বাস্হ অধিকর্তা সেলের ইন্দ্রজিৎ সিনহাকে সঙ্গে নিয়ে রাজ্যসভাপতির নির্দেশে রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালের সুপারদের সাথে দেখা করেন বিজেপি নেতা জয় ব্যানার্জী। সেসময় ডেঙ্গু সচেতনতা তৈরি করতে চলতি বছরের জন্য ব্যবস্থা নিতে বলেন জয়। লজ্জার বিষয় এটাই যে খোদ স্বাস্থ্য ভবনে ডেঙ্গু মশার লাভা পাওয়া গেছে। বর্ষার শুরুতে বাকি মরসুমে ডেঙ্গি আতঙ্ক নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন। এই ঘটনা প্রমাণ করে প্রশাসন ভেঙে পড়েছে । এবং বাংলার মানুষের কোনও দিক থেকে নিরাপত্তা নেই।



খোদ স্বাস্থ্যভবনেই ডেঙ্গির আঁতুর ঘর। বর্ষার শুরুতেই ডেঙ্গি মশার লার্ভা মেলায় সমালোচনার মুখে পড়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। বিজেপির দাবি গত বছরের শুরুতেই রাজ্যের হাসপাতালগুলিতে বিজেপির প্রতিনিধি দলের সদস্যরা সচেতনতা শিবির করার অনুরোধ করেছিল। বিজেপি নেতা জয় বন্দোপাধ্যায়ের দাবি, রাজ্যে যে কোনও নিরাপদ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই প্রমানিত।


ডেঙ্গি রোধের যাবতীয় পদক্ষেপ এখান থেকেই নেওয়ার কথা, অথচ সেই স্বাস্থ্য ভবনেই তিন-তিনটি জায়গা থেকে পাওয়া গেল মশার লার্ভা! ডেঙ্গির যেমন রয়েছে, তেমনই পাওয়া গিয়েছে ম্যালেরিয়ার মশার লার্ভাও! ডেঙ্গি সংক্রমণ কার্যত মহামারীর চেহারা নেওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে, আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

বুধবার  সকালে পুর আধিকারিক ও কর্মীদের নিয়ে স্বাস্থ্যভবন পরিদর্শনে যান বিধাননগর পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ। ন্যাশনাল হেলথ মিশনের অফিসের পিছনের দিকে যেতেই তাঁদের চোখ কপালে ওঠার জোগাড়! প্লাস্টিকের চায়ের কাপ, রঙের কৌটো থেকে থার্মোকলের প্যাকেট! কী নেই! সব জায়গাতেই জলে খেলে বেড়াচ্ছে মশার লার্ভা!

পরিদর্শন চলাকালীন পুর আধিকারিকরা জানতে পারেন, স্বাস্থ্য ভবনের জেনারেটর রুমের পাশে যে ভ্যাট রয়েছে, তা দীর্ঘদিন পরিস্কার হয়নি। সেখানে গিয়েও সত্যি হল আশঙ্কা! দেখা গেল জমা জল! নিশ্চিন্তে বেড়ে উঠছে মশার বংশধররা!!
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment