দেশে সবথেকে বেশি মানসিক রোগী বাংলায়

সাম্প্রতিক প্রায়  40 হাজারের কাছাকাছি মানসিক রোগের তালিকা তৈরি করেছেন মনস্তাত্ত্বিকেরা..এই বাইরেও রয়েছে  অনেক রকমের মানসিক রোগ যার নাগাল এখনো পাওয়া যায়নি.. তালিকা মেনে প্রায়  40 হাজার প্রাপ্তবয়স্ক ও 2200 নাবালকের মধ্যে সম্প্রতি এক সমীক্ষা চালানো হয়.. তামিলনাড়ু,গুজরাট, কেরালা, রাজস্থান ,পাঞ্জাব ,উত্তরপ্রদেশ মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, ঝাড়খন্ড সহ গোটা পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে চলে এই বিশাল সমীক্ষ সারাদেশের মানসিক রোগের হার নির্ধারণের জন্য ..
কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে "হেলথ এন্ড নিউরোসায়েন্স " এই তরফ থেকে পরিচালিত সমীক্ষাটির নাম ছিল "ন্যাশনাল  মেন্টাল  হেলথ  সার্ভে".প্রতি বছরেই হয়ে থাকে সমীক্ষা কিন্তু এ বছর এই রিপোর্ট চমকে দিচ্ছে দেশকে.. দেশের মধ্যে মানসিক রোগের তালিকায় প্রথম সারিতে পশ্চিমবঙ্গ,ঠিক তার পরেই রয়েছে ছত্তিশগড়, মনিপুর আর অসম..
এমনকি সমীক্ষায় বলছে কর্নাটকের মোট জনসংখ্যার 8% নাকি ভুগছে মানসিক রোগে, সমীক্ষায়  আরো দেখা গেছে  সাধারণত ৩০  থেকে ৪৯  বছর অর্থাৎ যে সময়টা মানুষের কর্মক্ষমতা চূড়ান্ত সীমায় থাকে সেই গ্রুপের মানুষের মধ্যেই মানসিক রোগের হার বেশি, এর পরেই আছে ৬০ বছরের  উর্দ্ধে ব্যক্তিরা.. এ ছাড়া মানসিক অসুস্থতা গভীরভাবে চোখে  পড়ছে  ছাত্রছাত্রীদের মধ্যেও, তবে গ্রামাঞ্চলের তুলনায়  শহরাঞ্চলে মানসিক অসুস্থতার হার অনেক বেশি.. সমীক্ষার মতামত, প্রতি ১০ জনের মধ্যে অন্তত ৮ জন মানুষ অবসাদের মতো মানসিক রোগের শিকার.. মানসিক রোগের এই তালিকায় স্থান পেয়েছে "ফোবিয়া" বা ভয়, "এংজাইটি" বা দুশ্চিন্তার মত অভ্যাসও..সাধারণত এই ধরনের মানসিক রোগের হার বেশি..


Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment