ক্যানিংয়ে ৩১৪ রাউণ্ড কার্তুজ নিয়ে পুলিশের জালে ধৃত চার হিন্দু সংহতি পরিবারের সদস্য

মৃত্যুঞ্জয় সর্দার :আসন্ন প্রজাতন্ত্র দিবসে নাশকতামূলক ষড়যন্ত্রের পরিকল্পনায় সোমবার রাত্রী  ক্যানিং লোকাল থেকে  নেমে বাসস্ট্যান্ডের উদ্দেশ্যে রওনা দিতে গেলে অটোতে ওঠার সময় ঠিক ১০:৩০মিনিট নাগাদ জেলা পুলিশসুপার অরিজিৎ সিনহার নেতৃত্বে ক্যানিং থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক আশীষ দাশ সহ বাকি পুলিশ আধিকারিকদের অতি তৎপরতায় ৩১৪ রাউন্ড কার্তুজ ভর্তি একটি ট্রলি ব্যাগ সহ চার দুষ্কৃতিকারীকে  হাতেনাতে আটক করা হয় | ঘটনাস্থল থেকেই গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাওয়া হয় ক্যানিং থানায় ওই চার অভিযুক্তকে | এলাকা জুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য | পুলিশ সূত্রে জানা যায় অভিযুক্তরা বিহার থেকে আসছিলো বলে ইতিমধ্যে জেরায় স্বীকার করেছে | 

এছাড়াও পুলিশি জেরায় উঠে আসে যে চার অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাঁদের মধ্যে তিন জন শেখর মণ্ডল , পিণ্টু মণ্ডল , প্রভাকরণ মণ্ডলের  বাসন্তীর ৪ নম্বর নোয়াখালীর বাসিন্দা ও  অপর অভিযুক্ত মহাদেবের বাড়ী চরাডাকাতিয়ায়,মোটামুটি ভাবে ধারণা করা যাচ্ছে এরা সবাই হিন্দু সংহতি পরিবারের সমর্থক | এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তর ২৪ পরগণার জেলা পুলিশ সুপার অরিজিৎ সিনহার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিঁনি বলেন যে  "আমি এবং আমার সহকর্মীরা গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অতি সক্রিয়তার সঙ্গে এই চার দুষ্কৃতীকে ধরেছি | এদের কাছে ৩১৪ রাউণ্ড কার্তুজ পাওয়া গেছে | কি উদ্দেশ্য নিয়ে এখানে এসেছিলো বা কাদের বা ইন্ধন আছে পিছনে তা এখান তদন্ত সাপেক্ষ্".. 
তবে এই ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসনের অতি সক্রিয় ভূমিকায় আসন্ন প্রজাতন্ত্র দিবসে বড়োসড়ো নাশকতামূলক পরিকল্পনাকে বানচাল করল বলেই মনে করেন স্থানীয় এলাকাবাসী | তাঁরা মনে করেন এই ধরনের ঘটনা আরও একবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল রাজ্য পুলিশের সামনে কেন্দ্রীয় পুলিশের ব্যর্থতা তা না হলে বিহার থেকে কিভাবে তারা এতো বিশাল পরিমাণের সব আগ্নেয়অস্ত্র নিয়ে অনায়াসে আসতে পারে  | স্থানীয় বাসিন্দাদের আরও  একাংশের মতামত পঞ্চায়েত ভোটের আগে এবং এই সব দুষ্কৃতীদের বাড় বাড়ন্তে  যে কোনো ছোট ঘটনাকে কেন্দ্র করেই যে কোনো সময় ক্যানিং ও বাসন্তী উত্তপ্ত হয়ে উঠছে আর সাধারণ মানুষজন প্রাণ হারাচ্ছে | 
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment