বাস দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত দৌলতাবাদ

স্নেহাশিষ মুখার্জি:পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলায় ভয়াবহ বাস দূর্ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় দৌলতাবাদে | দৌলতাবাদে ব্রিজ ভেঙ্গে করিমপুর থেকে মালদহগামী যাত্রী বোঝাই বাস ভৈরব নদীতে পড়ে  |তার পর  পুলিশ ,দমকল তথা বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ঘটনাস্থলে দেরিতে আসায় ক্রুদ্ধ মানুষরা পুলিশের ওপর হামলা চালায় | একাধিক পুলিশের গাড়ীতে আগুণ লাগানো হয় | পুলিশ জনতাকে নিয়ন্ত্রণ করতে কাঁদানে গ্যাস প্রয়োগের পাশে লাঠি চার্জ এমনকি গুলি চালিয়ে নিজেদের আক্রমণ থেকে বাঁচানোর চেষ্টা করে | পশ্চিমবঙ্গে সাম্প্রতিক সময়ে এতবড় বাস দুর্ঘটনা ঘটেনি বলেই মনে করছেন পর্যবেক্ষক মহল | তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা রাজীব হোসেন জানিয়েছেন , যে মানুষকে বোঝানো হয়েছে ,পরিস্থিতি এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রনে নিজেদের মধ্যে এই সব করে কোনো লাভ নেই,মানুষজনের বোঝানো হচ্ছে এখন ইতিমধ্যে পরিস্থিতি ঠান্ডা | 

প্রসঙ্গতঃ উল্লেখ্য যে বাস ড্রাইভারের দোষে মুর্শিদাবাদের দৌলতাবাদে ভয়াবহ দূর্ঘটনা ঘটে | সেতুর রেলিং ভেঙ্গে বাস পরে যায় খালে | এখন পর্যন্ত্য দেহ উদ্ধারের কাজ চলছে | অপর একটি বেসরকারী বাসকে ওভারটেক করতে গিয়ে দৌলতাবাদের নলিনী বাস্কে সেতুটিতে দুর্ঘটনাটি ঘটে | বাসটি সম্পুর্ন ডুবে যাওয়ায় প্ৰাথমিক ভাবে উদ্ধার কাজ ব্যাহত হয় | স্থানীয়রা নৌকা নিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করেছেন | খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে জায় দমকল ও পুলিশবাহিনী | স্থানীয় সূত্রের খবর এই দূর্ঘটনা ঘটে ঘন কুয়াশার জেরে | এছারা রাস্তটি ছিল খুবই সংকীর্ণ | তাছাড়া দুর্ঘটনাগ্রস্থ বাসটির চালক মোবাইল কানে দিয়ে বাসটি চালাচ্ছিলেন বলে গুরুতর অভিযোগ উঠছে | দিন কয়েক আগে এক বাইক আরোহীকে বাঁচাতে গিয়ে দিনের বেলা পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুরের কাছে নায়নজুলিতে বাস পড়ে, সেই দুর্ঘটনায় মারা গেছিল ৭ জন | 

মুর্শিদাবাদের দৌলতাবাদে ব্রিজের রেলিং ভেঙে ভৈরব নদীতে বাস পড়ার  ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী ও পরিবহন সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় | তাঁরা দাঁড়িয়ে থেকে উদ্ধার কার্যের তদারকি করেন | ঘটনাস্থলে গিয়েই উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেন শুভেন্দু অধিকারী  | মুর্শিদাবাদে পৌঁছেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  নিহত ও আহতদের ক্ষতিপূরনের কথা ঘোষণা করেন | আহতদের ক্ষেত্রে ৫০ হাজার থেকে ১ লক্ষ্য টাকা  ও নিহতদের ৫ লক্ষ্য টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে তিঁনি ঘোষণা করেন | এদিকে নিজের খাসতালুকে এই মর্মান্তিক ও ভয়াবহ দুর্ঘটনার খবর শুনে দিল্লি থেকে ফিরছেন প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি অধির চৌধুরি ও | 

পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী জানান উদ্ধারকার্যে কোন বিলম্ব হয়নি | অযথা গুজব ছড়ানো হচ্ছে উল্টো  উদ্ধার কার্যে বাঁধা দেওয়া হয়েছে বলে তার দাবি  | হাওড়া ,কলকাতা দুই চব্বিশ পরগনা থেকেও এনডিআরএফ , ডুবুরি , আটটি বড় ক্রেন পাঠানো হয়| প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৬ | এদের মধ্যে ৯ জন  মহিলা ও ৩ জন শিশু | কিছু মানুষ এখনও মৃত্যুর সংগে পাঞ্জা লড়ছে |



Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment