মহিলা সংগঠনকে চাঙ্গা করে বাম শিবিরে ভাঙ্গন ধরিয়ে কেষ্টদার পদ্ম শিবির আক্রমণ !!!

Indiapost24 Web Desk : বীরভূমের তৃনমূলের জেলা সভাপতি অণুব্রত মণ্ডল তাঁর শাসনকালে মাত্র ৬ বছরের মধ্যেই বিভিন্ন রকমের কঠিণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ফলে তিঁনি তার সাংগঠনিক শক্তিকে আরও অনেক চাঙ্গা করেছেন বিরোধি শিবিরে রাজনৈতিক আঘাত হানতে যেকোনো নির্বাচনে | আর ঠিক সেই কারণেই এভাবে গোটা জেলাভিত্তিক তিঁনি মহিলাদের নিয়েও  শক্ত সংগঠন তৈরি করার উদ্দেশ্যে আজ মহম্মদ বাজারে বীরভূমের দুই বিধানসভা রামপুরহাট ও সাঁইথিয়া এর মোট ১২ টা ব্লকের কম বেশি ৩০ হাজার মহিলা কর্মী সমর্থক  নিয়ে এক কর্মিসভার আয়োজন করেন |
সভায় মূলতঃ আলোচ্য বিষয় ছিল আগামী পঞ্চায়েতে বীরভূমে কোনওভাবেই যেন  বিরোধিরা ঠাঁই না পায় | এবং পাশাপাশি নারীসমাজকে উদবুদ্ধ করতে  এদিন মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর কন্যাশ্রী , রুপশ্রী প্রকল্পগুলির সুফল নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন | তিঁনি মহিলাদের উদ্দেশ্যে বলেন মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং মহিলা , তাই তিঁনি মহিলাদের দুঃখের কথা বোঝেন আর পাশপাশি গুরুত্ব ও  | আপনাদের কথা ভেবেই আজ মমতা ব্যানার্জী রাজ্যের প্রতিটা জেলায় প্রতিটা ব্লকে ৫০ শতাংশ মহিলা সিট সংরক্ষণ করেছেন , আপনারা ভয় না পেয়ে এগিয়ে আসুন , দল আপনাদের পাশে আছে সর্বসময় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে |
এদিন তাঁর রাজনৈতিক  বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়ে ১৫০ জন সিপিএম নেতা কর্মী সমর্থক  তৃনমূলে যোগদান করেন এদিন তাঁর সভা থেকে বিজেপি রাজ্য সভাপতির শ্মশান বিতর্ককে  ও হুঁশিয়ারি কে আরও উসকে দিয়ে   জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডল বলেন  এবারের ভোটের লড়াই তাঁরা একেবারে শ্মশান পর্যন্ত নিয়ে যাবেন৷ তিনি আরো বলেন, শ্মশানে আসতে চাইলে স্বাগত দিলীপ ঘোষকে৷ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিটি শ্মশানকে সুন্দর করে সাজিয়ে দিয়েছেন৷ নাম রেখেছেন বৈতরণী৷সেই বৈতরণীতে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা তাদের নেতাদের নিয়ে ঘুরে যেতেই পারেন৷ আসতে পারেন দিলীপ ঘোষ নিজেও৷ এই  ভাবে তাঁর স্বভাব সিদ্ধ ভাবেই পদ্ম  শিবির কে আক্রমণ করে মজাকি এক আবহাওর মধ্যে দিয়ে শেষ করেন তাঁর বক্তব্য   ..
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment