পাকিস্তানি হিন্দু উদ্বাস্তুদের জন্য দরাজ মোদি সরকার

Indiapost24 Desk:সীমান্ত রক্ষার পাশে পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু উদ্বাস্তুদের জন্য বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মোদি সরকার |কেন্দ্র এজন্য ২০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন |পাক অধিকৃত কাশ্মীর থেকে জম্বু ও কাশ্মীরের মাটিতে ৩৬,৩৪৮ টি পরিবারকে সনাক্ত করেছে জম্বু -কাশ্মীর সরকার |প্রতি পরিবার পিছু সাড়ে ৫ লক্ষ টাকা সাহায্য দেওয়া হবে |বিগত লোকসভা নির্বাচনের আগে জম্বুতে এসে মোদি ঘোষণা করেছিলেন পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু শরণার্থীদের বিশেষ সুবিধা দেওয়া হবে |অবিভক্ত পাকিস্তানের দুটি অংশ ছিল পুর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান |সেই পশ্চিম পাকিস্তানের দখলে থাকা কাশ্মীরের অংশ থেকে ১৯৪৭ সালে দেশভাগ ১৯৬৫ ১৯৭১ সালে ভারত পাক যুদ্ধের পর বহু মানুষ এদেশে চলে আসেন |জম্বু ও কাশ্মীরের সংবিধান অনুসারে পাক অধিকৃত কাশ্মীর থেকে আসা হিন্দু উদ্বাস্তুরা রাজ্যে স্হায়ী বাসিন্দা নন |তারা লোকসভায় ভোট দিতে পারলেও বিধানসভায় পারবে না |ফলে তাদের কর্মসংস্থান হচ্ছে না |এইজন্য তারা মোদি সরকারের কাছে ৯ হাজার কোটি টাকা প্যাকেজের অনুরোধ করেছিলেন |শেষ পর্যন্ত মোদি সরকার ২ হাযার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিলেন বলে পর্যবেক্ষক মহল মনে করছে |
পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দুদের প্রতি মোদি দরাজ হলেও উত্তর পূর্বাঞ্চল ,পশ্চিমবঙ্গে আসা বাঙালি হিন্দু উদ্বস্তুরা মোদি সরকারের দরাজ হাত দেখছেন না |বিগত লোকসভা নির্বাচন ও অসম বিধানসভা নির্বাচন এর আগে অসমে প্রচারে এসে নরেন্দ্র মোদি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সাবেক পুর্ব পাকিস্তান ও বর্তমান বাংলাদেশ থেকে ধর্মীয় ,সামাজিক ,রাজনৈতিক কারণে চলে আসা বাঙালি হিন্দুদের নাগরিকও দেওয়া হবে |তবে কেন্দ্র সরকারের তৎপরতা না থাকলেও অসমীয়া উগ্র জাতীয়তাবাদের দাপটে জাতীয় নাগরিকপঞ্জী বা এনআরসি তৈরি কে কেন্দ্র করে বাংলাভাষী মুসলিমদের মত বাংলাভাষী হিন্দুরাও চরম আতঙ্কে রয়েছেন |
বাঙালি সংগঠনের অভিযোগ অসমে ৩০ লক্ষ বাংলাভাষীকে রাষ্ট্রহীন করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে বিজেপি সরকার |আপাতত ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই অসমে নাগরিকপঞ্জি প্রকাশ করা হবে বলে জানানো হলেও প্রচুর বাঙালি হিন্দুকে অসম পুলিশ হেনস্থা করেছে বলে উত্তাল অসমের বাংলাভাষী এলাকাগুলি |
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment