পরিবর্তনপন্থী শিবিরে শাঁওলী মিত্রের বিদ্রোহ

Indiapost24 Desk :পশ্চিমবঙ্গে সিপিএমএর নেতৃত্বাধীন বাম জমানার অবসানের জন্য বিশিষ্ট নাট্য ব্যাক্তিত্ব ও অভিনেত্রী শাঁওলী মিত্র পরিবর্তনপন্থী শিল্পী -বুদ্ধিজিবি শিবিরে যোগ দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বন্দনায় মেতেছিলেন |ক্ষমতায় আসার পর শাঁওলী মিত্র একাধিক সরকারি প্রতিষ্ঠানের মুখ্য ব্যাক্তিত্ব হোয়ে উঠেছিলেন |সেই পরিবর্তনপন্থী শিল্পী এবার মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ওপর ক্ষুদ্ধ হোয়ে বাংলা একাডেমির সভাপতির পদ ছাড়তে চেয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন |শাঁওলী মিত্রের লেখা এই চিঠিতে কাজ করতে অসুবিধার কথা জানিয়েছেন|

পশ্চিমবঙ্গে তৃনমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর রবীন্দ্র রচনাবলী দেখাশোনার দায়িত্ব দেওয়া হয় শাঁওলী মিত্র কেই |সেই সময় বাংলা একাডেমির দায়িত্বে ছিলেন মহাশ্বেতা দেবী |শাঁওলী মিত্র জানান ২০১৬ পর্যন্ত কাজ করতে অসুবিধা না হলেও তার পর থেকে হয় |বাংলা একাডেমির সভাপতির পদ ছাড়তে ৩ সপ্তাহ আগে চিঠি দিলেও সরকার ই পর্যায়ে কোন উত্তর মেলেনি |সিঙ্গুর ,নন্দীগ্রাম পর্বের সময় থেকেই তৎকালীন তৃনমূল নেত্রীর সঙ্গী হোয়েছিলেন শাঁওলী মিত্র |বাম শাষনের শেষের দিকে পরিবর্তন চাই বলে যে স্লোগান দিয়ে হোডিং প্রকাশিত হোয়েছিলো তার অন্যতম ছিলেন তিঁনি |

২০০২ সালে মনমোহন সিং দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর রেলমন্ত্রী হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় |সেই সময় পরিবর্তন চাই শ্লোগান দেওয়া বিদ্যজনের একাংশকে রেল এ ঠাঁই দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় |কমিটির সদস্য হওয়ার সুবাদে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা ছাড়াও মাসে পেতেন ২৫ হাজার টাকা | কেউ বা পেতেন ৫০০০০ টাকা |রেলমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী বছরে ভাতা বাবদ খরচ হতো ৪ কোটি টাকা |যদিও অধীর চৌধুরি ২০১৩ সালে রেলমন্ত্রি হওয়ার পর এই কমিটি ভেঙ্গে দেন |

বাংলা নাট্যজগতের প্রবাদপ্রতিম ব্যাক্তিত্ব শম্ভু মিত্র এবং তৃপ্তি মিত্রের কন্যা 2011 সালে রবীন্দ্র সার্ধশতবর্ষ উজ্জাপনের দায়িত্বে ও ছিলেন |শাঁওলী মিত্রের পদত্যাগ ও পরিবর্তনের জমানা নিয়ে জমা ক্ষোভের কারনে নানা প্রতিক্রিয়ায় তৃনমূল শিবিরে ক্ষোভের বাতাবরণ তৈরি হোয়েছে |মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও শাঁওলী মিত্রের আচরণে ক্ষুদ্ধ |শাঁওলি মিত্রের ক্ষোভের কারণ পরিবর্তন জমানায় বাম শিবির থেকে প্রচুর সুবিধাবাদী শিল্পী ও বুদ্ধিজীবি তৃনমূল শিবিরে পরিবর্তন জমানার সামনে থাকা মানুষদের নানা ভাবে অসন্মান ও অপরাধমূলক আচরন শুরু করেন |তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর শাঁওলী মিত্রের নানা বক্তব্যকে পাত্তা না দেওয়া তেই শেষ পর্যন্ত বাংলা একাডেমীর সভানেত্রীর পদ থেকে তিনি নিজেই পদত্যাগ করলেন বলে মনে করছে পর্যবেক্ষক মহল |
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment