পুরানো পার্টির শ্রাদ্ধ করে নতুন ভাবে যুবরাজের হাত ধরে তৃণমূলে বামফ্রন্ট বিধায়ক ধীরেন্দ্র নাথ লায়েক

Indiapost24 Web Desk:আজ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাঁকুড়ার সভায় ছাতনার বর্ষীয়ান পোড়খাওয়া নেতা তথা আরএসপি বিধায়ক ধীরেন্দ্র নাথ লায়েক তার সব রাজনৈতিক অনুগামীদেরকে নিয়ে জেলার তামাম নেতাদের চমকে দিয়ে যোগদান করলেন  তৃণমূল কংগ্রেসে৷ বাঁকুড়ার রানিবাঁধে হলুদ কানালি হাইস্কুলের মাঠে ছিল বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল পর্যবেক্ষক তথা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পঞ্চায়েত রাজ্ সম্মেলন৷ উপস্থিত ছিলেন জেলার তৃণমূল নেতৃত্বরা ৷ তাই সকাল থেকেই সভায় জনগণের ঢল নামে৷ ধীরেন্দ্র নাথ লায়েক এর মতো পোড়খাওয়া রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব অভিষেকের হাত ধরে ঘাঁস ফুলের পতাকা তলে আসায় ইতিমধ্যে রাজ্যবাপী বিরোধী শিবির সহ রাজনৈতিক মহলে রীতিমত এক শোরগোল ফেলে দিয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বেশেষজ্ঞমহলের একাংশ ৷


রাজ্যে বিভিন্ন তৃণমূল নেতা ও নেতৃত্বদের হাত ধরে বিরোধীদের ভাঙন রয়েছে অব্যাহত  ৷ আর শুরুয়াত সেই ২০১১ সালে থেকেই তবে রাজ্যে রাজনৈতিক পালা বদলের পর থেকে তৃণমূল কংগ্রেস ক্রমশ শক্তিশালী হয়েছে, আর বিরোধীদের চুরমার করে চলছে৷ অনেক রাজনৈতিক সচেতন মানুষজনেরা ভেবেছিলেন একদা দলের সেকেন্ড ইন কমান্ড মুকুল রায় তৃণমূল ছেড়ে পদ্মশিবিরে  চলে যাওয়ায় তৃণমূলের হয়তো রাজনৈতিক রক্তক্ষরণ শুরু হবে হয়তো বা সাংগঠনিক দিক দিয়ে দল দুর্বল হয়ে পড়বে  ৷ 

কিন্তু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুযোগ্য নেতৃত্বে মুকুল খাস তালুকেই কয়েক দিন আগে গত বারের বীজপুর বিধান সভার বিজেপি প্রার্থী আলোরানী সরকার ঘাসফুল তলে আসে ৷তারপর পঞ্চায়েত ভোটের মুখে বাম বিধায়কের আজকে এই ভাবে তৃনমূলে যোগদান করিয়ে বামেদের রাজনৈতিক দুশ্চিন্তার পাশাপাশি সাংগঠনিক দুর্বলতাও আরো কয়েক গুন্ বাড়িয়ে দিলো বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষক মহল ৷

এদিন মঞ্চ থেকে নেতা  ধীরেন্দ্র নাথ লায়েক বললেন মমতা ব্যানার্জীর উন্নয়ন এর একজন সৈনিক হেসাবে তিনি এই দলে যোগদান করলেন এবং আগামীতে জেলার মানুষের উন্নয়নের কথা ভেবেই তার এই যোগদান ৷
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment