কর্ণাটকে তৃতীয় ফ্রণ্ট উদ্বেগ কংগ্রেস নেতৃত্ব !!!



NNS : বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশ , ছত্রিশগড় ও রাজস্থান নির্বাচনের আগেই কংগ্রেস শাসিত কর্ণাটকে এপ্রিলের মধ্যে ভোট পর্ব সারা হতে চলেছে | সিদ্ধিরামাইয়ার নেতৃত্বে কর্ণাটকের বর্তমান কংগ্রেস সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠান বিরোধি হাওয়াকে কাজে লাগিয়ে প্রবীন লিঙ্গায়েত নেতা বিএস ইয়াদুরাপ্পাকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে তুলে ধরে বিজেপি প্রচার অভিযানে নেমে পড়েছে |
এরই মধ্যে নরেন্দ্রমোদী , অমিত শাহেরা বেশ কবার কর্ণাটকে এসে একাধিক জনসমাবেশে ভাষণ দিয়েছেন | কর্ণাটক প্রদেশ কংগ্রেস নেতারা আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস আবার ক্ষমতায় ফিরবে বলে মনে করলেও কংগ্রেস হাই কম্যান্ড কিন্তু কর্ণাটকে সহজে কংগ্রেসের জয় আসবে এমন ধারণা পোষণ করছেন না |
এদিকে কংগ্রেস হাই কম্যান্ড এর উদ্বেগ বেড়েছে  প্ৰাক্তন প্রধাণমন্ত্রী এইচ ডি দেবেগৌড়ার নেতৃত্বে জনতা দল ( সেকুলার ) নেতাদের অতি সক্রিয়তায় | এরইমধ্যে বহুজন সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো মায়াবতীর সঙ্গে কর্ণাটকে জোট গঠনের কথা জানান হয়েছে | 


শারদ পাওয়ারের এন সি পি কর্ণাটকে দুর্বল রাজনৈতিক শক্তি হলেও তাঁরা তৃতীয় ফ্রন্টে সামিল হতে চলেছে | তৃতীয় ফ্রন্টের  সক্রিয়তায় কংগ্ৰেসের উদ্বেগ বেড়েছে এই কারণে যে গুজরাটে সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে শারদ পাওয়ারের এন সি পি ও মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি বিজেপি বিরোধি ভোটে ভাগ বসিয়ে অন্তত ১০ টি আসনে কংগ্রেসকে হারাতে বাধ্য করেছে | যার থেকে লাভ উঠিয়েছে গেরুয়া শিবির |

 কর্ণাটকে কংগ্রেস হাই কম্যান্ড এর নেতারা মনে করছেন যে দেবেগৌড়া মায়াবতীদের জোট দলিত ভোটে ভাগ বসিয়ে কংগ্রেসের যাত্ৰা ভঙ্গ  করতে পারে | তৃতীয় জোটের তৎপরতায় স্বাভাবিক ভাবেই অনেকটা স্বস্তিতে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ সহ দলের নেতারা এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক মহল |
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment