অ্যাজমার যে যে উপসর্গ প্রত্যেকের জানা উচিত!!

অ্যাজমা বা হাঁপানি হলো শ্বাসনালীর প্রদাহজনিত দীর্ঘমেয়াদি রোগ। অ্যাজমার প্রধান উপসর্গ হচ্ছে, শ্বাসকার্যের সময় হুইসেল দেওয়ার মতো বা সাঁসাঁ বা চিঁচিঁ শব্দ হওয়া। অ্যাজমার আরো দুর্বোধ্য উপসর্গ সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

১. আপনার বয়স চল্লিশের ঘরে আছে
 বয়স্কদের মধ্যে অ্যাজমা আরম্ভ হওয়ার শ্রেষ্ঠ বছর হচ্ছে ৪৫ থেকে ৫০।যাদের মধ্যে অ্যাজমা বিকশিত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে তাদের অধিকাংশেরই অ্যালার্জি আছে আবার ঠান্ডা লাগলে হঠাৎ অ্যাজমাও হতে পারে।

২. আপনার কাশি দূর হচ্ছে না
এটি ভাবা সহজ যে কাশির মানে হচ্ছে আপনার ঠান্ডা লেগেছে বা ব্রংকাইটিস হয়েছে, কিন্তু কাশির ফিরে আসা অব্যাহত থাকলে এটি অ্যাজমার লক্ষণ হতে পারে। যখন আপনি হাসেন বা শয়ন করেন, আপনার কাশি আরো খারাপ হয়। এটি বুক থেকে আসে, গলা থেকে নয়।

৩. আপনি প্রচুর দীর্ঘশ্বাস, হাই তুলে শ্বাস অথবা গভীর শ্বাস গ্রহণ করেন
দীর্ঘশ্বাস, হাই তুলে শ্বাস, গভীর শ্বাসের মানে এই নয় যে আপনি অবশ্যই অ্যাজমায় ভুগছেন। তবে ভুগতেও পারেন-প্রকৃতপক্ষে, এসব অ্যাজমার উপসর্গ হতে পারে। 

৪. আপনি প্রায়সময় ক্লান্ত থাকেন
অ্যাজমার ক্ষেত্রে শ্বাসকার্যের শব্দ ও কাশি রাতে আরো বেশি তীব্র হয়। বিঘ্নিত ঘুম হতে পারে প্রথম উপসর্গ এবং এটি একটি মারাত্মক সমস্যা। রাতে ভালো ঘুম না হলে শুধুমাত্র শারীরিক শক্তি নয়, মনের প্রখরতাও হ্রাস পাবে। দীর্ঘস্থায়ী ঘুমহীনতার সঙ্গে হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসের বর্ধিত ঝুঁকির সম্পর্ক পাওয়া গেছে এবং কিছু বিশেষজ্ঞ ধারণা করছেন যে এটি অ্যাজমাকে আরো তীব্র করতে পারে। তবে অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণ করা গেলে ঘুমের সমস্যা চলে যেতে পারে।

৫. আপনার বুকে টাইট অনুভূত হয়
 কোনোকিছু আপনার বুকের ওপর চাপ দিচ্ছে বা বসে আছে এমন অনুভূত হয়। লোকজন প্রায়ই এ টাইট অবস্থাকে হার্ট অ্যাটাক ভেবে ভুল করে। আপনার চিকিৎসক প্রকৃত অবস্থা নির্ণয় এবং উপযুক্ত চিকিৎসা প্রদান করতে পারেন।

৬. আপনি দ্রুত অগভীর শ্বাস নেন
কিছু লোকের ক্ষেত্রে দ্রুত অগভীর শ্বাসকার্য অ্যাজমার একটি উপসর্গ হতে পারে।  বিশ্রামে বয়স্ক মানুষের স্বাভাবিক শ্বাসপ্রশ্বাসের হার প্রতি মিনিটে ১২ থেকে ২০ বার। কিন্তু হাইপারভেন্টিলেশনের ক্ষেত্রে শ্বাসপ্রশ্বাস প্রতিমিনিটে ৩০ বার বা এর চেয়ে দ্রুত হয়।

৭. আপনি বিড়ালের প্রতি অ্যালার্জিক
 ৫০ শতাংশ অ্যাজমা রোগের ঘটনা অ্যালার্জির সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত এবং বিড়ালের প্রতি অ্যালার্জিক হওয়াটা একটি শক্তিশালী ঝুঁকিপূর্ণ কারণ। প্রায় ৩০ শতাংশ অ্যাজমা রোগের ঘটনার ক্ষেত্রে ক্যাট অ্যালার্জেন জড়িত..
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment