আসানসোলে ফুরফুরে মেজাজে প্রচারে মুনমুন !!!


আসানসোল,সৌরদিপ্ত সেনগুপ্ত: গত সপ্তাহে কালীঘাটের অফিস থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করার পর আসানসোলের মনোনীত প্রার্থী অভিনেত্রী মুনমুন সেন তার প্রথম পর্যায়ের প্রচার শুরু করলেন।

 গতবার তিনি পার্শ্ববর্তি জেলা বাঁকুড়ার সংসদ ছিলেন। দুপুর বেলায় তিনি একটি সাংবাদিক সম্মেলন  করেন। সাংবাদিকদের প্রশ্ন করার আগেই সবাইকে অবাক করে দিয়ে মুনমুন জানতে চান "আমি প্রার্থী না হয়ে অন্য কেউ হলে কি ভালো হতো?" সাংবাদিকরা বলেন এটা একেবারেই তৃণমূলের ব্যাপার ! তাদের আর কি বলার আছে!



 বাবুল সুপ্রীয়র সম্পর্কে একের পর এক প্রশ্ন ধেয়ে আসতে থাকে তারকা প্রার্থীর দিকে। কিন্তু তিনি রাজনৈতিক কাদা ছোড়াছুড়ির বিরুদ্ধে বার্তা দেন। তিনি বলেন, আমি কারো নিন্দা করতে এখানে আসিনি। আমি কাজ করতে এসেছি, গত পাঁচ বছরে আমি কি কি কাজ করেছি তা বাঁকুড়ার গ্রামে গ্রামে খোঁজ নিতে পারেন । আমি সেখানে পাঁচ বছরের কাজের খতিয়ান নিয়ে একটি পুস্তিকা তৈরি করেছি।"

 তিনি তাঁর প্রচার শুরু করেন কল্যানেশ্বরি মন্দিরে পুজো দিয়ে। দুপুর ৩ টে ২৫ মিনিটে সেখানে পুজো দেন। উপস্থিত ছিলেন  আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারি, বিধায়ক বিধান উপাধ্যায়, পুরসভার মেয়র পারিষদ পূর্ণ শশী রায়। একথা পুরোহিতরা খবর রেখেছিলেন। সি গ্রিন শাড়ি পরে গাড়ি থেকে নেমে সোজা মন্দিরে পুজো দেন।

 মায়ের কাছে কি চাইলেন জানতে চাওয়ায় তিনি বলেন " সারা বাংলার মঙ্গল কামনায় পুজো দিলাম, সঙ্গে পশ্চিম বর্ধমানের সমস্ত মানুষের মঙ্গল হোক, এটাই চাইলাম মা 
কল্যানেশ্বরির কাছে"। মন্দিরের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখেন তিনি। এরপর বিকেল ৪ টের মধ্যে আসানসোলের দিকে রওনা হন। আসানসোলের জি টি রোডের রামকৃষ্ণ মিশন মোড়ে  মুনমুন সেনের সমর্থনে তৃণমূলের তরফে একটি মিছিলের আয়োজন করা হয়।প্রার্থীর সঙ্গে মিছিলে ছিলেন মন্ত্রী মলয় ঘটক, জেলা সভাপতি ভি শিবদাসন ওরফে দাসু, মেয়র জিতন্দ্র তেওয়ারি, ডেপুটি মেয়র তাবাসসুম আরা, পুরসভার চেয়ারম্যান অমরনাথ চ্যাটার্জি প্রমুখ আরো অনেক দলীয় সমর্থক , নেতা ও কর্মীরা। মিছিলে জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নেতা ও প্রচুর দলীয় সমর্থক এসেছিলেন। মুনমুন প্রথমে কিছুটা হাঁটেন। পরে রিকশা ও অটোয় চাপেন।পরে গির্জা মোড়ে একটি হুড খোলা গাড়িতে এসে মিছিল শেষ করেন।

 সেখানে সভায় প্রচুর মানুষের জমায়েত হয়, মন্ত্রী মলয় ঘটক, মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারি,  মেয়র পারিষদ অভিজিৎ ঘটক এবং আরও অনেক নেতা, কাউন্সিলর উপস্থিত ছিলেন। মুনমুন সেন সেখানে কয়েক মিনিট বক্তব্য রাখেন ও সভা শেষ হয়।
Add caption
Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment