পশ্চিমবঙ্গ নিয়ে দিল্লিতে অতি সক্রিয় বিজেপি !!!

 


পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কে পরাস্ত করে বিজেপিকে ক্ষমতায় আনতে অতি সক্রিয়তা শুরু

হয়েছে দলের কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতাদের মধ্যে। সঠিক প্রচার নির্বাচনের জন্য বুথ সংগঠন গড়ে তোলা সম্ভব হলে এবং বিধানসভা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন সঠিকভাবে সারা সম্ভব হলে নবান্নে প্রশাসনিক ক্ষমতা দখল বাস্তবায়িত হওয়া সম্ভব বলেই মনে করছেন গেরুয়া শিবিরের চাণক্য অমিত শাহ। তাই পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির 294 প্রার্থী তালিকার মধ্যে প্রথম দুই পর্বে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে দলের সভাপতি জেপি নাড্ডার দিল্লির বাসভবনে চলছে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক। বৈঠকে হাজির আছেন স্বয়ং অমিত শাহ। রয়েছেন দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, অমিতাভ চক্রবর্তী, সুভেন্দু অধিকারি, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় সহ  পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির দলীয় নেতারা। 


প্রথম দু'দফার প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করতে চলছে আজকের বৈঠক। বৈঠক শেষে আজ রাতেই প্রকাশিত হতে পারে বিজেপির প্রার্থী তালিকা এমনটাই দাবি দলীয় সূত্রে। পশ্চিমবঙ্গের প্রথম দু'দফায় ষাটটি আসনে হবে ভোট গ্রহণ। ইতিমধ্যে প্রথম দফার বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। চলছে মনোনয়ন। কিন্তু প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেনি রাজ্যের কোন প্রধান রাজনৈতিক দলই। বিজেপির প্রার্থী তালিকা নিয়ে গত কয়েকদিন দফায় দফায় বৈঠক করছেন রাজ্যের নেতারা। তাতে প্রতিটি আসনে অন্তত তিন জনের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে। তার মধ্যে থেকেই একজনকে বেছে নেওয়া হবে আজকের বৈঠকে। বৈঠকে যোগ দিতে গতকালই বিশেষ বিমানে দিল্লি গিয়েছেন, দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, রাহুল সিনহা, শিবপ্রকাশরা।

দ্বিতীয় দফায় ভোট গ্রহণ নন্দীগ্রামে। যেখানে সম্ভবত প্রার্থী হতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর বিরুদ্ধে শুভেন্দু অধিকারী লড়বেন কিনা তা নিয়েও আজকের বৈঠকে আলোচনা চলছে বলে খবর। সূত্রের খবর নন্দীগ্রামে না ধরলে পূর্ব মেদিনীপুরের ই অন্য কোন আসনে লড়তে পারেন তিনি। বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে,প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত হলে আজিতা ঘোষণা হতে পারে বিজ্ঞপ্তির আকারে। কারণ প্রথম দফার মনোনয়ন পেশের শেষ তারিখ 9 মার্চ দ্বিতীয় দফার 12 মার্চ।

Share on Google Plus Share on Whatsapp



0 comments:

Post a comment